Monday , September 20 2021
Breaking News

সম্প্রীতির নজির, মুসলিম পরিবারের জন্য মসজিদ তৈরিতে এগিয়ে এলেন গ্রামবাসীরা

সম্প্রীতির এক অনন্য নজির স্থাপন করল পঞ্জাবের (Punjab) ভুলার (Bhoolar) গ্রাম। চার মুসলিম পরিবারের জন্য মসজিদ তৈরিতে এগিয়ে এলেন গ্রামের অন্যান্যরা। দেশভাগের সময় অনেকে পাকিস্তানে চলে গেলেও, এই চার পরবিার রয়ে গিয়েছিলেন ভুলারে। গ্রামে এতদিন ৭টি গুরুদ্বার এবং দুটি মন্দির ছিল। কিন্তু ছিল না কোনো মসজিদ। তাই মসজিদ তৈরির উদ্যোগ নিলেন স্থানীয়রাই।

গ্রামবাসীরা মসজিদ তৈরির জন্য চাঁদাও নিচ্ছে। ১০০ টাকা থেকে ১ লক্ষ, সামর্থ অনুযায়ী সকলেই মসজিদ বানানোর জন্য সাহায্যও করেছেন।

রবিবার সকালে মসজিদের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপনের অনুষ্ঠান ছিল। কিন্তু ভারি বৃষ্টি এবং খারাপ আবহাওয়ার কারণে সে অনুষ্ঠানে সমস্যা তৈরি হয়। কিন্তু অনুষ্ঠান পুরোপুরি বন্ধ হয়নি। গ্রামবাসীরা ঠিক করেন আয়োজিত অনুষ্ঠানটি গুরুদ্বারে গিয়ে সম্পন্ন করা হোক। গ্রামবাসীরা মসজিদের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপনের বিশেষ অনুষ্ঠানের জন্য গুরুদ্বারের গেট খুলে দেন এবং লঙ্গরের আয়োজন করেন।

এবিষয়ে গ্রাম প্রধান পালা সিং বলেন, ‘ ১৯৪৭ সালে দেশভাগের আগে এখানে একটি মসজিদ ছিল। কিন্তু মজিদের কাঠামো ধীরে ধীরে ধ্বংস হয়ে যায়। সেই তখন থেকেই আমাদের গ্রামে এই চার মুসলিম পরিবার থেকে যায়। এবং হিন্দু, মুসলিম, শিখ, সকল পরিবার একসঙ্গে মিলেমিশে এই গ্রামে আমরা বাস করি।’

তিনি আরও যোগ করে বলেন, গ্রামবাসীরাই চেয়েছেন এই মুসলিম পরিবারগুলি যাতে তাদের প্রার্থনা করার জায়গা পায়। সে জন্যই একসম যেখানে মসজিদ ছিল, সেখানেই নতুন করে তাদের জন্য মসজিদ গড়ে তোলার পরিকল্পনা করা হয়।

এরপর গ্রাম প্রধান বলেন, কয়েক ঘণ্টার মধ্যে আমরা আলাপ আলোচনা করে সবকিছু বন্দোবস্ত করি। এরপর সমস্ত জাতিধর্ম একসঙ্গে মিলে এই অনুষ্ঠানে সকলে অংশগ্রহণ করে। তিনি জানান যে, এই মসজিদের তৈরিতে গ্রামে মোট ১০টি প্রার্থনা জায়গা তৈরি হল। কারণ এর আগে সে গ্রামে শিখদের জন্য ছিল ৭টি গুরুদ্বার। হিন্দুদের জন্য ছিল ২টি মন্দির। এবার তাতে যোগ হল ১টি মসজিদ।

About A..

Check Also

প্রকাশ্যে এলো দু’শো বছর আগের পবিত্র কাবা শরীফের ছবি

যুক্তরাষ্ট্রের নিলাম সংস্থা সোথেবি’স হাউজ এবার মধ্যপ্রাচ্যের বিরল কিছু ঐতিহাসিক ছবি নিলামে তুলছে। সেসব ছবির …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *