Tuesday , September 21 2021
Breaking News

স্ত্রীর মৃত্যুর ৫দিনের মাথায় প্রয়াত কিংবদন্তি অ্যাথলিট মিলখা সিং

চণ্ডীগড়ঃ ভারতীয় ক্রীড়া জগতের নক্ষত্র পতন। প্রয়াত দেশের কিংবদন্তি অ্যাথলিট ‘উড়ন্ত শিখ’ মিলখা সিং (Milkha Singh)। শুক্রবার রাত সাড়ে ১১টা নাগাদ শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৯১ বছর।

গভীর শোকপ্রকাশ করেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, ক্রীড়ামন্ত্রী কিরন রিজিজু, পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমৃন্দর সিং, বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়-সহ দেশ-বিদেশের বহু বিশিষ্টজনেরা।

৯১ বছর বয়সি মিলখা (Milkha Singh) গত বুধবারই কোভিডমুক্ত হয়েছিলেন এবং তাঁকে জেনারেল আইসিইউতে স্থানান্তরিত করা হয়েছিল। তবে ফের তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় ডাক্তারদের উদ্বেগ খানিক বেড়েছিল । চন্ডীগড়ের পোস্ট গ্র্যাজুয়েট ইন্সটিটিউট অফ মেডিক্যাল এডুকেশন অ্যান্ড রিসার্চের একদল ডাক্তার ফ্লাইং শিখের(Flying Sikh) দেখভাল করছিলেন। হাসপাতাল সূত্রে জানানো হয়েছিল গত কয়েকদিন ধরে মিলখা সুস্থই ছিলেন। হাসপাতাল সূত্র থেকে বলা হয়েছে, ‘হঠাৎ করে বৃহস্পতিবার রাতে তাঁর(মিলখা সিং) জ্বর আসে এবং তাঁর শরীরে অক্সিজেনের মাত্রাও কমে যায়’।

মিলখার শারীরিক অবস্থা সম্বন্ধে তাঁর পরিবারের তরফ থেকে একটি বিবৃতি প্রকাশ করে বলা হয়েছিল, ‘ দিনটা একটু কঠিন ছিল মিলখা জি’র জন্য। কিন্তু উনি লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন’।

এশিয়ান গেমসে(Asian Games) চারবারের স্বর্ণপদক জয়ী মিলখা গত মাসে কোভিড আক্রান্ত হয়েছিলেন। তাঁর স্ত্রী নির্মল কউরও(Nirmal Kaur) এই মারণ ভাইরাসের কবলে পড়েছিলেন। গত রবিবার মোহালির একটি বেসরকারি হাসপাতালে তিনি প্রয়াত হয়েছেন।

কোভিড আক্রান্ত হওয়ার কিছুদিন পরেই ফ্লাইং শিখের(Flying Sikh) শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাঁকে মোহালির একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। সেখানে এক সপ্তাহ চিকিৎসা চলার পর তাঁকে পোস্ট গ্র্যাজুয়েট ইন্সটিটিউট অফ মেডিক্যাল এডুকেশন অ্যান্ড রিসার্চে স্থানান্তরিত করা হয়।

এশিয়ান গেমসে(Asian Games) চারবার সোনা জেতার পাশাপাশি মিলখা ১৯৫৮ কমনওয়েলথ গেমসেও(Commonwealth Games) দেশকে সোনা এনে দিয়েছিলেন। এছাড়াও ফ্লাইং শিখ ১৯৫৬, ১৯৬০ এবং ১৯৬৪ অলিম্পিকে(Olympics) দেশের প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন। ১৯৫৯ সালে ভারত সরকারের তরফ থেকে কিংবদন্তি মিলখা সিংকে পদ্মশ্রী(Padma Shri) পুরস্কারে ভূষিত করা হয়েছে।

About A..

Check Also

ট্রফিতে চুম্বন মেসির।

দুঃখ পেয়েছি বহু বার, তবে জানতাম একদিন দেশের হয়ে ট্রফি জিতবই, বললেন মেসি

এই মুহূর্তটাই দেখতে চাইছিল বিশ্ব। এই মুহূর্তটাই দেখতে চাইছিলেন তাঁর অগণিত অনুরাগীরা। লিয়োনেল মেসির হাতে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *