Tuesday , September 21 2021
Breaking News

লকডাউনে গঙ্গার ঘাটে ঘুরতে এসে একই ফ্রেমে ধরা পড়লেন অন্বেষা-শ্রুতি

সম্প্রতি বাংলা ধারাবাহিকের দুই পরিচিত মুখ হলেন শ্রুতি দাস এবং অন্বেষা হাজরা। সম্প্রতি একই ফ্রেমে ধরা পড়লেন অভিনেত্রী শ্রুতি দাস, অন্বেষা হাজরা এবং সহ পরিচালক বিবো। বর্তমানে গোটা রাজ্য জুড়ে চলছে আংশিক লকডাউন। লকডাউনের বিধি নিষেধের সময়সীমা বেড়েছে ১৫-ই জুলাই পর্যন্ত। আর এই আংশিক লকডাউনের মধ্যেই অভিনেত্রী শ্রুতি ও অন্বেষা এবং সহ-পরিচালক বিবোকে একসাথে দেখা গেল উত্তর কলকাতার গঙ্গার ঘাটে।

সম্প্রতি অভিনেত্রী শ্রুতি দাস ও অন্বেষা হাজরা এবং সহ-পরিচালক বিবো বিপ কাজের ফাঁকে সময় বার করে চলে গিয়েছিলেন গঙ্গার ঘাটে। সেখানেই নানা ইনস্টা রিল বানিয়ে তা নিজেদের সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডেল থেকে শেয়ার করেছেন। তারা তিন জনেই নিজেদের সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্ট থেকে ছবি পোস্ট করেছিলেন এদিন। দেখেই বোঝা যাচ্ছে তারা তিন জনেই বেশ ভালো বন্ধু। একে অপরের স্টোরিও নিজেদের স্টোরিতে শেয়ার করেছেন তারা।

অভিনেত্রী শ্রুতি দাস ও অন্বেষা হাজরা এবং সহ-পরিচালক বিবো বিপ এনারা তিন জনেই যে যার নিজের সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্ট থেকে বেশ অ্যাকটিভ। সোশ্যাল মিডিয়ায় এই তিনজনের কোন রোগীর সংখ্যা নেহাত কম নয়। সম্প্রতি স্টার জলসা ‘দেশের মাটি’ ধারাবাহিকে নোয়ার চরিত্রে অভিনয় করছেন শ্রুতি দাস এবং জি বাংলার ‘এই পথ যদি না শেষ হয়’ ধারাবাহিকে উর্মির চরিত্রে অভিনয় করছেন অন্বেষা হাজরা। বর্তমানে এনারা দুজনেই বেশ জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে নিজেদের অভিনয় দক্ষতার মাধ্যমে।

অভিনেত্রী শ্রুতি দাসের নিজস্ব একটি ইউটিউব চ্যানেল আছে। সেখানে তিনি মাঝে মাঝে ভ্লগ পোস্ট করে থাকেন। এদিন অভিনেত্রী শ্রুতি দাস তার ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডেল থেকে ছবি পোস্ট করে তার ক্যাপশানে লিখেছেন নতুন ভ্লগ খুব শিগগিরই আসতে চলেছে তার ইউটিউব চ্যানেলে।

সম্প্রতি অভিনেত্রী শ্রুতি দাস তার বাবার জন্মদিনেও ভ্লগ নিয়েছিলেন যা তিনি তার অনুরাগীদের সঙ্গে শেয়ার করে নিয়েছিলেন। তার ইউটিউব চ্যানেলে প্রায় আড়াই হাজারের বেশি সাবস্ক্রাইবার রয়েছেন ইতিমধ্যেই। তিনি তার সেই চ্যানেলের জন্য ভ্লগ তৈরি করতে এসেছিলেন গঙ্গার ঘাটে তার বন্ধুদের সঙ্গে।

About A..

Check Also

নুসরত জাহান

সন্তানের লিঙ্গ প্রকাশের সময় হয়ে এল, নুসরতের বাড়িতে পৌঁছল কেক, ছেলে না মেয়ে?

সন্তানসম্ভবা অভিনেত্রী-সাংসদ নুসরত জাহান। তাঁর বেবি বাম্পের ছবি প্রথম প্রকাশ করেছিল আনন্দবাজার অনলাইন। তার পরে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *